Home অন্য ভূবন চিকিৎসার ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক করলেন ওমরসানী
চিকিৎসার ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক করলেন ওমরসানী

চিকিৎসার ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক করলেন ওমরসানী

0
0

স্টাফ রিপোর্টার- গত শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের রূপসী বাসস্ট্যাণ্ডের অতি নিকটে পুণঃযাত্রা হলো স্বদেশ সেন্ট্রাল হাসপাতাল ও ডিজিটাল ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তারাব পৌরসভার মেয়র হাসিনা গাজী এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, রাজধানীর এ্যাপোলো হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট অধ্যাপক ডা. শাহাব উদ্দিন তালুকদার ও চিত্রনায়ক ওমরসানী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথি ও সাধারণ মানুষদের উদ্দেশ্যে ওমরসানী বলেন,‘ আমি ধন্যবাদ জানাই এই হাসপাতারের পরিচালক রকিব হোসেনকে আমাকে এমন একটি সুন্দর অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য। কারণ তারা কয়েকজন বন্ধু মিলে সাধারণ মানুষকে সেবা দেবার উদ্দেশ্যে এই হাসপাতালটি গড়ে তুলেছে। আমার বিশ্বাস যে তারা রোগীদের যথাযথ সেবা দিয়েই ব্যবসা করবেন। অবশ্যই তারা ব্যবসা করবেন, কেন নয়। নিজেদের আর্থিকভাবে ক্ষতি করার জন্যতো তারা এই হাসপাগাল গড়ে তুলেননি। তবে অনুরোধ থাকবে এটাই যে রোগীদের ভালো মানের চিকিৎসা যেন সুনিশ্চিত করা হয়। আবার সবাইকে উদ্দেশ্য করে আমি এটাও বলতে চাই সুস্থ ভাবে বেঁচে থাকতে হলে অনেক নিয়ম কানুন মেনে চলতে হবে। রোগ হলে চিকিৎসাতো করানোই যায়-এমন মনোভাবনা নিয়ে জীবনে পথ চলা যাবেনা।

মনে রাখতে হবে শরীরের সুস্থতাটা খুউব জরুরী। সবচেয়ে বড় কথা আমাদের মন পরিস্কার রাখতে হবে। মন পরিস্কার রাখলেই আমাদের নিজেদের শরীরের প্রতি নিজেরা যত্নবান হবো। সুস্থভাবে সুন্দরভাবে এই পৃথিবীতে বেঁচে থাকার মতো শান্তি আর কিছুতে নাই। একজন মানুষ নিজেই নিজের সর্বোচ্চ যতœ নিলে তাকে সাধারণত খুব বেশি অসুস্থ হতে হয়না। আমি মহান আল্লাহর কাছে অসীম কৃতঞ্জতা প্রকাশ করছি। কিছুদিন আগে আমিও অসুস্থ হয়েছিলাম। তখন যে মানুষটি আল্লাহর অশেষ রহমতে আমার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি ডা. শাহাব উদ্দিন স্যার। তিনি এখানে আমাদের মাঝে আমার কথা রাখতে গিয়ে উপস্থিত হয়েছিলেন। স্যারের প্রতি আমি আন্তরিক কৃতজ্ঞ এই মুহুর্তে আমাদের পাশে থাকার জন্য। কারণ স্যার সত্যিই অনেক ব্যস্ত একজন ডাক্তার। তার সময় পাওয়া খুব কঠিন বিষয়। কিন্তু তারপরও তিনি আমাদের সময় দিয়েছেন।’ অনুষ্ঠানে ডা. শাহাব উদ্দিন বলেন,‘ সেবার দৃষ্টিকোণ থেকেই প্রতিনিয়তই নতুন নতুন হাসাপাতাল চালু হচ্ছে। কিন্তু শেষমেষ সেবাটাই সাধারণত দেয়া হয়না। অনেকেরই টাকা আছে। কিন্তু হাসপাতাল প্রতিষ্ঠিত করার মানসিকতা সবার থাকেনা। যারা উদ্যোগ নিয়ে এই হাসপাতাল চালু করেছেন তাদের প্রতি আমার আন্তরিক অভিনন্দন। কারণ সেবা মানুষের বড় ধর্ম। সেই মনোবাসনা নিয়েই এই প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু-শুনে ভালোলাগলো। একটি হাসপাতালে সুনাম রক্ষা করার গুরু দায়িত্ব ডাক্তারদের এবং কর্মচারীদের। ডাক্তার এবং রোগীদের মধ্যে সম্পর্কটা হতে হবে ভীষণ আন্তরিক। একজন রোগী কী বলতে চান তার কথা মন দিয়ে শুনতে হবে। তা শুনে তার করনীয় কী এবং কী ঔষুধ দেয়া যেতে পারে তার যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন ডাক্তার। তাহলেই একটি হাসপাতালের সুনাম ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়ে। তাই এই হাসপাতালের সাথে সম্পৃক্ত সবার কাছে অনুরোধ থাকবে আপনারা সেবার মানসিকতা নিয়েই রোগীদের পাশে থাকবেন, প্লিজ।’ উল্লেখ্য ‘স্বদেশ সেন্টাল হাসপাতাল’র চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মোসাঃ সাহিদা আক্তার এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দায়িত্বরত আছেন মোঃ শরীফ হোসেন। পুরো অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করেন প্রখ্যাত সাংবাদিক, সঙ্গীতশিল্পী ও লেখক আমিরুল মোমেনীন মানিক।

   বাম থেকে হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, পরিচালক ও দুই উপদেষ্টা পরিচালক

 

ছবি- আলিফ হোসেন রিফাত