Home অন্য ভূবন বিনোদন সাংবাদিকতার পথ ধরে ‘মীনা অ্যাওয়ার্ড’-এ ভূষিত ন্যান্সী
বিনোদন সাংবাদিকতার পথ ধরে ‘মীনা অ্যাওয়ার্ড’-এ ভূষিত ন্যান্সী

বিনোদন সাংবাদিকতার পথ ধরে ‘মীনা অ্যাওয়ার্ড’-এ ভূষিত ন্যান্সী

0
0

স্টাফ রিপোর্টার– বিনোদন সাংবাদিকতার পথ ধরে জেনারেল বিট’-এ কাজ করতে এসে একজন সাংবাদিক হিসেবে শ্রেষ্ঠত্বর পুরস্কার লাভ করলেন সাদিয়া ইসলাম ন্যান্সী। সম্প্রতি রাজধানীর প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে অনুষ্ঠিত ‘মীনা অ্যাওয়ার্ড ২০১৮’র ১৪’তম আসরে ন্যান্সী একজন শ্রেষ্ঠ সাংবাদিক হিসেবে পুরস্কার লাভ করেন। তার হাতে পুরস্কার তুলে দেন বিশ্বনন্দিত জাদুশিল্পী জুয়েল আইচ ও প্রিয়দর্শিনী আরিফ পারভীন জামান মৌসুমী। ন্যান্সী বর্তমানে এটিএন নিউজ’এ স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে কর্মরত হলেও এর আগে তিনি রেডিও টুডে’তে চাকরী করতেন। সেখানে সাংবাদিকতা করার সময় তিনি সিজারিয়ান অপারেশনের উপর ভিত্তি করে দেশে বাড়ছে সিজারিয়ান বাণিজ্য’র একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। তার উপরই ভিত্তি করে সাদিয়া ইসলাম ন্যান্সী’কে রিপোর্টার ক্যাটাগরিতে ‘সাংবাদিকতা বিভাগ ওভার ১৮’র দ্বিতীয় পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। জুয়েল আইচ ও মৌসুমীর হাত থেকে ন্যান্সী সম্মাননা ক্রেস্ট ও পঁচিশ হাজার টাকার চেক গ্রহণ করেন। একজন সাংবাদিক হিসেবে জীবনে প্রথমবারের মতো পুরস্কৃত হওয়ায় ন্যান্সী ভীষণ উচ্ছসিত। আজ সকালে আলাপকালে ইয়েসনিউজবিডিডটকমকে ন্যান্সী বলেন,‘ মীনা অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হবার পর আমার কাজের প্রতি উৎসাহ যেমন বেড়েছে, দায়িত্বও বেড়েছে বহুগুণে। কাজের স্বীকৃতি যে একজন সত্যিকারের কর্মঠ মানুষের দায়িত্ব যে বাড়িয়ে দেয় তা আমি নিজে এখন অনুভব করছি। আমার আগামী দিনের পথচলায় এই পুরস্কার অনেক বড় অনুপ্রেরণা হয়ে কাজ করবে। আমি সত্যিই আমার কাজের প্রতি আরো অনেক বেশি সিরিয়াস হয়ে উঠেছি যেন বর্তমানে যে প্রতিষ্ঠানে কাজ করছি সেই প্রতিষ্ঠানেরও সুনাম বৃদ্ধি করতে পারি আমার কাজের আরো স্বীকৃতির মধ্যদিয়ে। আমি কৃতজ্ঞ মহান আল্লাহর কাছে, আমার পরিবারের কাছে।’

 

 

 

২০১১ সালে দৈনিক যুগান্তরে এফআই দীপু’র হাত ধরে সাংবাদিকতায় ন্যান্সীর হাতে খড়ি। তখন একজন বিনোদন সাংবাদিক হিসেবেই তার যাত্রা শুরু হয়। জনপ্রিয় অভিনেত্রী মৌসুমী হামিদকে নিয়ে তার লেখা প্রথম সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হয় যুগান্তরে। এরপর টানা বেশকিছুদিন যুগান্তরে প্রদায়ক হিসেবে কাজ করার পর রেডিও আমার’এ কাজ করেন। পরবর্তীতে আবারো তিনি যুগান্তরে স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে যোগ দেন। ২০১৭ সালে তিনি রেডিও টুডে’তে যোগদেন। বর্তমানে তিনি এটিএননিউজ’এ কর্মরত। নারায়ণগঞ্জের আদর্শ স্কুলে নার্সারী থেকে অষ্টম শ্রেণী, পরবর্তীতে মরগেন উচ্চবিদ্যালয় থেকে এসএসসি, হলিক্রস কলেজ থেকে এইচএসচি এবং স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে জার্নালিজম এ্যাণ্ড ম্যাসকমিউনিকেসন বিভাগ থেকে অনার্স সম্পন্ন করেন। ন্যান্সীর বাবা জাহিদুল ইসলাম ও মা ফেরদৌসী ইসলাম। তার বড় বোন ফারজানা ইসলাম ফ্যান্সী ও ছোট ভাই ওয়াহিদুল ইসলাম ফাহাদ। আগামীদিনগুলোতে নিজেকে সাংবাদিকতার সাথেই সম্পৃক্ত রাখতে চান তিনি।
ছবি- গোলাম সাব্বির